বসদেরকে খুশি করতে পারলেই চাকরিতে মিলবে বেশি বেতন ও পদোন্নতি

নিজস্ব প্রতিবেদক

দীর্ঘ দিন যাবত সুনামের সাথে পরিচালিত হয়ে আসা নিউ লাইফ এন্ড কোং (প্রাঃ)লিঃ আজ কিছু অসাধু কর্মকর্তাদের কর্মকাণ্ডের কারণে সুনাম বিলুপ্তির পথে।

জানা যায় কোম্পানির এসিস্টেন্ট ম্যানেজার মোঃ শিহাব উদ্দিন ১৫/১ বড়বাগ মিরপুর ২ ঢাকা। খন্দকার সোহেল রেজা ও মোঃ শামীম হোসেন কোম্পানিতে কর্মরত মেয়েদের বিভিন্ন সময় হয়রানি মুলক ব্যবহার ও কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছেন। তাদের প্রস্তবে রাজি হয় তবেই ঠিক ভাবে চাকুরী করতে পারবে বেতন ভাতা ও পদোন্নতি মিলবে। আর যে এই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করবে তার চাকরি নিয়ে টানাটানি।

ভুক্তভোগী সেলিনা মাহবুব নার্গিস প্রোডাকশন সুপারভাইজার পদে ২০ বছর যাবত চাকরি করে আসছে। চাকরিরত অবস্থায় বসগন বিভিন্ন সময় কুপ্রস্তাব দিয়ে আসতো তাকে। তাদের দেয়া কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় চাকরি করতে দিবে না বলে বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি প্রদর্শন করেন।

বিষয়টি কোম্পানির ই-ডি জনাব শামসুল হক সাহেব কে জানালে তিনি কোন ব্যাবস্থা গ্রহণ করে নাই।

পরে কোম্পানির ফিন্যান্স ডিরেক্টর জনাব রেজাউল হক পারভেজ সাহেব কে জানালে তিনি তাদের কে ডেকে সতর্ক করে দেয় তাতে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে সেলিনা মাহবুব নার্গিস এর উপর আরও খারাপ আচারন করা শুরু করে এবং কুপ্রস্তাব দিতে থাকেন।

তাদের কথা না শুনলে অনেক বড় বিপদে পরতে হবে বলে হুমকিও দেন।

নিরুপায় হয়ে গত ২২/৮/২০২২ তারিখ সেলিনা মাহবুব নার্গিস মিরপুর মডেল থানায় একটা সাধারণ ডায়েরি করেন। ডায়েরি নং ২২৮৬।

জিডি করার কথা শুনে নার্গিস এর নামে খুব বাজে কথা বলে বেড়াচ্ছে। তাই নার্গিস মানসিক ভাবে ভেঙে পড়ছে। এমন অবস্থায় তার যে কোন ক্ষতি হতে পারে।

ভুক্তভোগীদের মধ্যে আর একজন রেবা বেগম স্বামী মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান ঠিকানা ৬৯৬ মধ্য মনিপুর তিনিও দীর্ঘ দিন যাবত নিউ লাইফ কোম্পানিতে চাকরি করে আসছে রেবার স্বামী বাদী হয়ে সি. এম এম কোর্টে মামলা করেছেন যার মামলা নং ৭১৯।

বিস্তারিত আসছে পরবর্তী সংবাদে …………

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published.